Friday, July 19
Shadow

Tag: কিডনি

কিডনির রোগ কেন হয় : কিডনিতে রোগ হওয়ার লক্ষণ, প্রতিকার ও চিকিৎসা

কিডনির রোগ কেন হয় : কিডনিতে রোগ হওয়ার লক্ষণ, প্রতিকার ও চিকিৎসা

Health, Health and Lifestyle
কিডনির রোগ কেন হয় অনিয়ন্ত্রিত ডায়াবেটিস ও উচ্চ রক্তচাপ এবং নেফ্রাইটিস (কিডনির বিভিন্ন সমস্যা)—এই তিন রোগের কারণে ৮০ ভাগ লোকের কিডনি রোগ হয়। জন্মগত কিছু সমস্যার কারণেও কিডনি রোগ হতে পারে। একজন সুস্থ মানুষেরও হঠাৎ প্রচণ্ড বমি বা পাতলা পায়খানার সময়ে প্রয়োজনীয় পানি ও স্যালাইন না খেলে কিডনি ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে। প্রায়ই যারা ব্যথার ওষুধ সেবন করেন, তাদেরও কিডনির সমস্যা হতে পারে। অতিরিক্ত আমিষ গ্রহণের কারণেও কিডনি ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে।   কিডনির রোগের লক্ষণ প্রাথমিক পর্যায়ে কিডনি রোগের তেমন কোনো লক্ষণ প্রকাশ পায় না। কিডনির কার্যক্রম ক্ষমতা কমতে থাকলে লক্ষণগুলো প্রকাশ পেতে শুরু করে। কিডনি রোগের সাধারণত লক্ষণের মধ্যে রয়েছে— প্রস্রাব করার সময় জ্বালাপোড়া, ঘন ঘন প্রস্রাব, প্রস্রাব লাল হওয়া, প্রস্রাবে দুর্গন্ধ, কোমরের দুপাশে ও তলপেটে প্রচণ্ড ব্যথা, শরীর-মুখ ফোলা ইত্যাদি। এ ছাড়া ক্ষুধামান্...
কিডনি রোগীদের জন্য পরামর্শ | কিডনি রোগের লক্ষণ

কিডনি রোগীদের জন্য পরামর্শ | কিডনি রোগের লক্ষণ

Health, Health and Lifestyle
 মানবদেহের অতি গুরুত্বপূর্ণ একটি প্রক্রিয়া হচ্ছে রেচন প্রক্রিয়া। এ প্রক্রিয়া আমাদের শরীর থেকে দূষিত পদার্থ গুলো নিষ্কাশন করে থাকে। এই রেচন প্রক্রিয়া সফলভাবে পরিচালনের লক্ষে যেসব অঙ্গ কাজ করে থাকে তার মধ্যে প্রধান হচ্ছে বৃক্ক বা কিডনি। শরীরের জন্য অতি গুরুত্বপূর্ণ একটি প্রক্রিয়া সম্পাদনকারী অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ এই অঙ্গটিতে অনেকসময় বেশ কিছু সমস্যার সৃষ্টি হয় যার প্রভাব পড়ে পুরো শরীরেই, সাধারণ অসুস্থতা থেকে মৃত্যুও হতে পারে কিডনি বিকলের কারণে। তাই আজ রইল কিডনি রোগীদের জন্য পরামর্শ এবং কিডনি রোগের লক্ষণ ।     কিডনি যেসকল কাজ করে   শরীরে অ্যাসিড ক্ষারের ভারসাম্য রক্ষা - রক্তের স্বাভাবিক pH ৭.৩৫ থেকে, ৭.৪৫ পর্যন্ত হয়ে থাকে। রক্ত ফিল্টারের মাধ্যমে অ্যাসিড ক্ষার ধরে রাখা কিংবা অতিরিক্ত অ্যাসিড ক্ষার নির্গমনের মাধ্যমে কিডনি শরীরে অ্যাসিড ক্ষারের ভারসাম্য রক্ষা করে।   ...
কিডনি রোগের ১০ লক্ষণ, জানেন কি?

কিডনি রোগের ১০ লক্ষণ, জানেন কি?

Cover Story, Health and Lifestyle
কিডনি দেহের গুরুত্বপূর্ণ একটি অঙ্গ। কিডনি রোগ খুব নীরবে শরীরের ক্ষতি করে। খুব জটিল অবস্থা না হওয়া পর্যন্ত সাধারণত লক্ষণগুলো ভালোভাবে প্রকাশও পায় না। তাই কিডনি রোগের প্রাথমিক লক্ষণগুলো আগে থেকেই জেনে রাখা জরুরি। স্বাস্থ্যবিষয়ক ওয়েবসাইট হেলথ ডাইজেস্ট জানিয়েছে কিডনি রোগের লক্ষণগুলোর কথা। ১. প্রস্রাবে পরিবর্তন কিডনির রোগের একটি বড় লক্ষণ হলো প্রস্রাবে পরিবর্তন হওয়া। কিডনির সমস্যা হলে প্রস্রাব বেশি হয় বা কম হয়। বিশেষত রাতে এই সমস্যা বাড়ে। প্রস্রাবের রং গাঢ় হয়। অনেক সময় প্রস্রাবের বেগ অনুভব হলেও প্রস্রাব হয় না। ২. প্রস্রাবের সময় ব্যথা প্রস্রাবের সময় ব্যথা হওয়া কিডনির সমস্যার আরেকটি লক্ষণ। মূলত প্রস্রাবের সময় ব্যথা, জ্বালাপোড়া- এগুলো ইউরিনারি ট্র্যাক্ট ইনফেকশনের লক্ষণ। যখন এটি কিডনিতে ছড়িয়ে পড়ে তখন জ্বর হয় এবং পিঠের পেছনে ব্যথা করে। ৩.প্রস্রাবের সাথে রক্ত যাওয়া প্রস্রাবের সাথে ...
পরিচিত একটি ফল যা খেলে নষ্ট হতে পারে আপনার কিডনি

পরিচিত একটি ফল যা খেলে নষ্ট হতে পারে আপনার কিডনি

Health and Lifestyle
ফলটি আমাদের সবার পরিচিত। অনেকেই বেশ আয়েশ করে খেয়ে থাকেন। কিন্তু এর রয়েছে মারাত্মক সাইড এফেক্ট। ফলটি নষ্ট করতে পারে আপনার কিডনি। ফলটির নাম কামরাঙ্গা। কিডনি বাঁচাতে রাস্তার আশপাশে বিক্রি হচ্ছে অহরহ। খাচ্ছেও দেদার। কিন্তু গবেষণার খবর রাখেন কজনা। টাইমস অব ইন্ডিয়ার খবরে জানা গেল এই কামরাঙ্গায় ভালর চেয়ে খারাপই করে বেশি। ভিটামিন সি আর অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট বেশি থাকলেও যাদের কিডনি দুর্বল তাদের কিডনির বারোটা বাজাতে পারে এটি। তাই কিডনিটাকে সুস্থ রাখতে লাগাম দিন জিভে। দূরে থাকুন টসটসে টক-মিষ্টি কামরাঙ্গা থেকে। কামরাঙ্গার বিষাক্ত উপাদানে অসুস্থতার প্রাথমিক লক্ষ্মণ হলো ঘনঘন হিক্কা ওঠা ও কাঁপুনি। মানসিক অস্থিরতাও তৈরি করতে পারে কামরাঙ্গা। হজমে গোলমাল পাকানোটাও সময়ের ব্যাপার। অনেক গবেষণাতেই দেখা গেছে ফলটি এককথায় বিষাক্ত। এটি সরাসরি আমাদের স্নায়ুতন্ত্রে প্রভাব ফেলে। এতে করে মানসিক এক ধরনের বৈকল্য দেখা দ...

Please disable your adblocker or whitelist this site!

error: Content is protected !!