Thursday, December 2
Shadow

Tag: ডায়াবেটিস

প্রাকৃতিক উপায়ে ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণের কিছু টিপস

প্রাকৃতিক উপায়ে ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণের কিছু টিপস

Health, Health and Lifestyle
ডায়াবেটিস হলে শরীর স্বাভাবিক উপায়ে ইনসুলিন বানাতে পারে না। তখন চিনির পরিমাণ নিয়ন্ত্রণ করতে হয় বিকল্প উপায়ে। চাইলে প্রাকৃতিকভাবেই নিয়ন্ত্রণে রাখা যায় সুগার। ২০-৩০ মিনিট টানা হাঁটলেই সুগার হাতের মুঠোয় থাকবে। নাচ, হাইকিং, সাঁতার কাটলেও সুগার কমবে। ভাতের পরিবর্তে রুটি-সবজি বেশি খান। প্রতিদিন ভুট্টা, বার্লি, ওট খেতে পারেন। নারীদের ২৫ গ্রাম ও পুরুষদের প্রতিদিন ৩৮ গ্রাম আঁশ জাতীয় খাবার খেতে হবে। সাদা চালের গ্লাইসেমিক সূচক ৭০-৭৭। বাদামি চালের ৬৪-৭২। তাই সুগার কমাতে বাদামি চাল খান। কম জিআই খাবারের তালিকায় আছে শিম, ডাল, মটরশুঁটি, গমের রুটি, নাশপতি, আপেল, কমলা, মাশরুম, টকদই এমনকি ডার্ক চকলেটও খেতে পারেন। ডায়াবেটিসে আক্রান্তদের শরীর হাইড্রেটেড রাখতে হবে। পর্যাপ্ত পানি পান করলেও রক্তের শর্করা নিয়ন্ত্রণে থাকে। দুশ্চিন্তা করলে কিছু হরমোন বেড়ে যায়। এতে সুগারও বাড়ে। ফুরফুরে মেজাজে থ...
পিজি হাসপাতালের ডা. শাহজাদা সেলিমের পরামর্শ : গরমে ডায়াবেটিস রোগীদের করণীয়

পিজি হাসপাতালের ডা. শাহজাদা সেলিমের পরামর্শ : গরমে ডায়াবেটিস রোগীদের করণীয়

Cover Story, Health and Lifestyle
পিজি হাসপাতালের ডা. শাহজাদা সেলিমের পরামর্শ : গরমে ডায়াবেটিস রোগীদের করণীয় চলছে গ্রীষ্মকাল। এ সময় গরমের তীব্রতা একটু বেশি থাকে। তাই সব বয়সের মানুষের একটু বেশি সতর্ক থাকা উচিত। তবে যাদের ডায়াবেটিস আছে তাদের আরও যত্নবান হওয়া জরুরি, না হলে পানি শূন্যতা থেকে শুরু করে প্রস্রাবের প্রদাহ, ত্বকের সংক্রমণ, অ্যালার্জিসহ বিভিন্ন রকম জটিলতা হতে পারে। এসব সমস্যা যে সব ডায়াবেটিস রোগীর কিডনি অবস্থা ভালো নয়/ উচ্চরক্তচাপ আছে/হৃদরোগ আছে অথবা যাদের বেশি পরিমাণে ইনসুুলিন লাগে ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণের জন্য, ডাইউরেটিক্স জাতীয় উচ্চরক্তচাপের ওষুধ সেবন করতে হয়, তাদের জোরালোভাবে আক্রান্ত করতে পারে। প্রখর উত্তাপ ও স্যাঁতসেঁতে পরিবেশে সময় কাটানো আপনার শরীরে ডায়াবেটিসের মতো দীর্ঘমেয়াদি রোগের ওপর নেতিবাচক প্রভাব ফেলে। উষ্ণ আবহাওয়া মানুষের কর্মশক্তি বাড়ালেও অতিরিক্ত তাপমাত্রা এবং স্যাঁতসেঁতে পরিবেশ ডায়াবেটিসের ক্ষেত্রে ...
ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে প্রয়োজন সঠিক ব্যায়াম

ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে প্রয়োজন সঠিক ব্যায়াম

Cover Story, Health and Lifestyle
ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে প্রয়োজন সঠিক ব্যায়াম শরীর সুস্থ রাখার জন্য কেবল সুষম খাবারই যথেষ্ট নয়। প্রয়োজন সঠিক ব্যায়ামের। আবার রোগ নিরাময়ের ক্ষেত্রেও ব্যায়ামের ভূমিকা রয়েছে। এর ফলে দেহের জ্বালানি খরচ বেড়ে যায়, ফলে দেহের চর্বি ক্ষয় হয় এবং অ্যাড়োনাল গ্রন্থির মাংসপেশি ও লিভারের গস্নাইকোজেন থেকে গস্নুকোজ সরে যায়। আধুনিক জীবনযাত্রায় মানুষকে ক্রমে পরিশ্রম বিমুখ করে তুলছে। সারাদিন বসে কাজ করা, গাড়িতে যাতায়াত করা, বাড়ি ফিরে পত্রিকা পড়ে বা টিভি দেখে সময় কাটানো। এতে কোনো শারীরিক পরিশ্রম হয় না। এর ওপর রয়েছে তেল-ঘি-চর্বিজাতীয় উচ্চ ক্যালোরিসম্পন্ন আহার। সুতরাং তাদের দেহ যন্ত্রকে সচল রাখার জন্য প্রয়োজন খাবার কমানো এবং ব্যায়াম করা। প্রতিটি লোকেরই অবসর সময়ে শুয়ে-বসে না থেকে কিছুটা হাঁটাহাঁটি বা ব্যায়াম করা উচিত। এতে রক্ত সঞ্চালন যেমন স্বাভাবিক থাকে, তেমনি খাদ্য থেকে যে ক...
পিজি হাসপাতালের এন্ডোক্রাইনোলজি বিভাগের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান ডা. ফরিদ উদ্দিনের পরামর্শ :  ডায়াবেটিস রোগীর স্বাভাবিক জীবনযাপন

পিজি হাসপাতালের এন্ডোক্রাইনোলজি বিভাগের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান ডা. ফরিদ উদ্দিনের পরামর্শ : ডায়াবেটিস রোগীর স্বাভাবিক জীবনযাপন

Cover Story, Health and Lifestyle
ডায়াবেটিস রোগীর জন্য সচেতন হলে ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে রেখেও প্রায় স্বাভাবিক জীবন যাপন করা যায়। পরামর্শ দিয়েছেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের এন্ডোক্রাইনোলজি বিভাগের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান ও কোর্স কো-অর্ডিনেটর অধ্যাপক ডা. ফরিদ উদ্দিন সুস্থ মানুষের চেয়ে ডায়াবেটিস রোগীদের সব কিছুতেই ঝুঁকি একটু বেশি থাকে। তাই সুস্থতার জন্য তাদের নিজেদের সম্পর্কে একটু বাড়তি যত্নবান হওয়া আবশ্যক। তাই কিছু করণীয় হলো— ♦ খাবারদাবারে নিয়ম মেনে পরিমিত সুষম খাবার গ্রহণ করুন। চিনি, মিষ্টিযুক্ত খাবার পরিহার করুন। শাকসবজি ও আঁশজাতীয় খাবার খান। ♦ ক্যালরিবহুল খাবার, যেমন তেল-চর্বিযুক্ত খাবার (তেল, ঘি, মাখন, ডালডা, চর্বি, ডিমের কুসুম, মগজ ইত্যাদি) কম খান। ♦ শর্করাবহুল খাবারগুলো (চাল, আটা ইত্যাদি দিয়ে তৈরি খাবার) কিছুটা হিসাব করে খান। শাকসবজি, ফলমূল বেশি খান। ♦ ফাস্ট ফুড ও কোল্ড...
ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে সহায়ক ঢেঁড়শ

ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে সহায়ক ঢেঁড়শ

Cover Story, Health and Lifestyle
ঢেঁড়শ গ্রীষ্মকালীন একটি সবজি। গোটা বিশ্বেই এর চাষ হয়। খেতে সুস্বাদু এই সবজিটি পুষ্টি গুণেও ভরপুর। ঢেঁড়শে প্রচুর পরিমাণে প্রয়োজনীয় খনিজ, ভিটামিন এবং উচ্চ পরিমাণে ফাইবার থাকায় এটি শরীর সুস্থ রাখতে ভূমিকা রাখে। প্রতিদিন খাদ্যতালিকায় ঢেঁড়শ রাখলে যেসব উপকারিতা পাওয়া যায়- ১. ঢেঁড়শে পর্যাপ্ত পরিমাণে ফাইবার থাকায় এটি হজমশক্তি বাড়াতে ভূমিকা রাখে। এছাড়া গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা, বমি বমি ভাব এবং কোষ্টকাঠিন্য দূর করে। ২. ঢেঁড়শে প্রচুর পরিমাণে পটাশিয়াম আছে। এ কারণে এটি রক্তচাপ কমাতে বেশ কার্যকরী। পটাশিয়াম এমন একটি উপাদান যা শরীরে সোডিয়ামের ভারসাম্য ঠিক রাখে। এছাড়া রক্তপ্রবাহ ঠিক রাখতেও সাহায্য করে। ফলে হৃদরোগজনিত জটিলতা কমে। ৩. ঢেঁড়শে ফাইবার থাকায় এটি দীর্ঘক্ষণ পেট ভরা থাকতে সাহায্য করে। এ কারণে এটি ওজন নিয়ন্ত্রণেও বেশ কার্যকরী। ৪. ঢেঁড়শে থাকা অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট ফ্রি রেডিকেলের বিরুদ্ধে কাজ ক...
মিষ্টি খেলেই হবে ডায়াবেটিস ! এমন ধারণা ভুল, বলছে চিকিৎসা বিজ্ঞান

মিষ্টি খেলেই হবে ডায়াবেটিস ! এমন ধারণা ভুল, বলছে চিকিৎসা বিজ্ঞান

Cover Story, Health and Lifestyle
এ কথা ঠিক যে, যাদের শরীরে ডায়াবেটিস বাসা বেধেছে, তাদের মিষ্টি খাওয়া একেবারেই উচিত নয়। কিন্তু, তা না হয়ে থাকলে, মিষ্টি খেতে বিশেষ কোনও বাধা নেই। এমন কথা বলছে চিকিৎসাশাস্ত্রই। মিষ্টি খেতে ভালবাসেন? তা হলে নির্ঘাত শুনতে হয় এমন কথা যে, বেশি মিষ্টি খেলেই হবে ডায়াবেটিস। এ কথা ঠিক যে, যাদের শরীরে ডায়াবেটিস বাসা বেধেছে, তাদের মিষ্টি খাওয়া একেবারেই উচিত নয়। কিন্তু, তা না হয়ে থাকলে, মিষ্টি খেতে বিশেষ কোনও বাধা নেই। এমন কথা বলছে চিকিৎসাশাস্ত্রই। সর্বভারতীয় এক সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদনে মিষ্টি ও ডায়াবেটিস-এর এই অম্লমধুর সম্পর্ক নিয়ে উল্লেখ করা হয়েছে কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ তথ্য। এই তথ্য সাধারণ মানুষকে সাহায্য করবে এটা সিদ্ধান্ত নিতে যে, তিনি আদৌ মিষ্টি খাবেন নাকি খাবেন না। ‘সুগার’ আসলে কী? সুগার যে শুধুমাত্র মিষ্টি, চিনি বা চকোলেট জাতীয় খাবারেই থাকে তা নয়। ফল, সব...
ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণ করবে করলার জুস

ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণ করবে করলার জুস

Cover Story, Health and Lifestyle
ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণ মোটেও সহজ কিছু নয়। এ সমস্যায় ভুগছেন এমন ব্যক্তিদের জন্য স্বাস্থ্যকর খাবারও রক্তে ​​শর্করার মাত্রা বাড়িয়ে দিতে পারে। তাই উপযোগী খাবার ও পরিমাণের ওপর জোর থাকে। ডায়াবেটিস বা বহুমূত্র একটি হরমোন সংশ্লিষ্ট রোগ। এ রোগে শরীরের অগ্ন্যাশয় যথেষ্ট ইনসুলিন তৈরি করতে পারে না। এ ছাড়া শরীর উৎপন্ন ইনসুলিন ব্যবহারে ব্যর্থ হয়। রক্তে শর্করার মাত্রা বেড়ে যায়। তাই শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রণ একটি গুরুত্বপূর্ণ কাজ। এ ক্ষেত্রে বিশেষ ভূমিকা রাখতে পারে করলার জ্যুস। করলার জ্যুস কেন ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে কার্যকর তা নিচে দেওয়া হলো : কারলা জ্যুস ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে একটি চমৎকার পানীয়। এটি শরীরের রক্তে শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রণে সহায়তা করে। ভারতের ব‍্যাঙ্গালোরভিত্তিক পুষ্টিবিদ ডা. আঞ্জু সুদ ব্যাখ্যা করেছেন এভাবে, 'করলার রস শরীরের ইনসুলিনকে সক্রিয় করে। ইনসুলিন সক্রিয় হলে শর্করা সঠিক...
ডায়াবেটিস  টাইপ  ১  কি ? প্রভাব, লক্ষণ, চিকিৎসা

ডায়াবেটিস টাইপ ১ কি ? প্রভাব, লক্ষণ, চিকিৎসা

Health and Lifestyle
ডায়াবেটিস  টাইপ  ১  কি ? টাইপ ১ ডায়াবেটিস এটি একবার হলে  জীবনকাল চিকিৎসা প্রয়োজন। শরীর যথেষ্ট পরিমাণে ইনসুলিন উৎপাদন করে না এবং রক্তের গ্লুকোজ মাত্রা উচ্চ থাকে। যতক্ষণ না একজন ব্যক্তি উচ্চ রক্তচাপ  কমাতে  পদক্ষেপ নেয়। ভারত এ  আনুমানিক ০৩৫-০৪০ শতাংশ প্রাপ্তবয়স্কদের টাইপ ১ ডায়াবেটিস রয়েছে। এই ডায়াবেটিস সঙ্গে প্রায় ৫ শতাংশ মানুষ ভোগে। যদিও এই ধরনের কোনও সম্পূর্ণ প্রতিকার পাওয়া যায় না, তবে  বিকল্পগুলির পরিসীমা মানে ব্যাধিযুক্ত ব্যক্তি পূর্ণ এবং সক্রিয় জীবনযাপন করতে পারে। এই প্রবন্ধে আমরা টাইপ ১ ডায়াবেটিস, কীভাবে এটি হয়  এবং উপসর্গগুলি সনাক্ত করার উপায়গুলি কী তা জানব।  ডায়াবেটিস  টাইপ  ১  কি ? প্রভাব, লক্ষণ, চিকিৎসাঃ   টাইপ ১  ডায়াবেটিস কি?    টাইপ ১  ডায়াবেটিস সব বয়সের মানুষের মধ্যে ঘটতে পারে। ডায়াবেটিস যখন রক্তে গ্লুকোজ, বা চিনি, অনিয়ন্ত্রিত এবং ধ...
মা-বাবার ডায়াবেটিস থাকলে সন্তানের ডায়াবেটিস হয় কিনা?

মা-বাবার ডায়াবেটিস থাকলে সন্তানের ডায়াবেটিস হয় কিনা?

Health and Lifestyle
মা-বাবার ডায়াবেটিস থাকলে এটি সন্তানের ওপর প্রভাব পড়ে  কিনা? এমন প্রশ্ন প্রায় অনেকে করে থাকেন। হ্যাঁ, যদি বাবা-মায়ের ডায়াবেটিস থাকে তাহলে ওজন কম হলেও সন্তানের ডায়াবেটিস হওয়ার আশংকা থাকে। এজন্য আগে থেকেই সচেতনতা বাড়াতে হবে। শরীরের ওজন বাড়তে দেওয়া যাবে না। যেসব খাবার খেলে ওজন বাড়ে সেসব পরিহার করতে হবে। অতিরিক্ত কার্বোহাইড্রেডযুক্ত চাল, গম, আলু, ভুট্টা প্রভৃতি থেকে তৈরি খাবারে ওজন বাড়ে। চর্বি জাতীয় খাবার, ফাস্টফুড, চকোলেট, আইসক্রিম এবং মিষ্টি খেলেও ওজন বাড়তে পারে। এছাড়া, শারীরিক পরিশ্রম কম করলেও ওজন বাড়তে পারে। তবে ডায়াবেটিসথেকে মুক্তি পেতে শারীরিক পরিশ্রম বাড়াতে হবে, সুষম খাদ্য খেতে হবে, হাইক্যালরিযুক্ত খাবার বাদ দিতে হবে, প্রতিদিন এক থেকে দুই ঘণ্টা নিয়ম করে হাঁটতে হবে। বেশি পরিমাণ শাকসবজি, টক জাতীয় ফল এবং সুষম খাদ্য খেতে হবে। বয়স ৩৫ বছরের বেশি হলে বছরে ১ থেকে ২ বার ডায়বেটিসের পরীক্ষা করাতে হ...
ডায়াবেটিস ডায়েট নিয়ে ভুল ধারণা

ডায়াবেটিস ডায়েট নিয়ে ভুল ধারণা

Health and Lifestyle
ডায়াবেটিস থাকা অবস্থায় ওজন কমানোটা খুব কঠিন ব্যাপার। এছাড়া ডায়াবেটিস হলে খাবার নিয়ন্ত্রণে রয়েছে বেশি কিছু প্রচলিত ধারণা। যা আমরা যুগ যুগ ধরে মেনে চলে আসছি। তবে এই প্রচলিত ধারণাগুলো থেকে আপনি এবার ঘুরে দাড়াতে পারেন।   ডায়াবেটিস ডায়েটে থেকেও আপনি অনেক কিছু খেতে পারেন আবার অনেক খাবার খাচ্ছেন যা আপনার খাওয়া ঠিক হচ্ছে না। আসুন জেনে নিই ডায়াবেটিস ডায়েট নিয়ে সঠিক কিছু তথ্য।   মিষ্টান্ন যারা ডায়াবেটিস ভুগছেন তাদের জন্য মিষ্টি এক প্রকার নিষিদ্ধ বলা চলে। কিন্তু ব্যাপারটি একেবারেই সে রকম নয়। এখন ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য ভিন্ন মিষ্টি পাওয়া যায়। যা খেলে রক্তে সুগারের পরিমাণ বাড়ে না। আপনি ডায়াবেটিসের রোগী হলে খাওয়ার পর এই মিষ্টান্ন খেতে পারেন। এছাড়া সারাদিনে আপনার খাবারে ক্যালরি এবং কার্বোহাইড্রেডের পরিমাণ কম থাকলে রাতে খাওয়ার পর একটু মিষ্টি আপনি খেতে পারেন। তবে পরিমাণ ঠিক রাখবেন...
error: Content is protected !!