Thursday, October 28
Shadow

শিশুর পেট ব্যথা হলে কী করবেন | শিশুর পেট ব্যথা কেন হয়?

শিশুর পেট ব্যথা সমস্যাটি খুব বেশি হতে দেখা যায়। একটু বড়রা যেমন সমস্যার কথা বলতে পারে কিন্তু ক্ষেত্রে সেটা বুঝে নিতে হয়। পেট ব্যথার নানা রকম সমস্যা থাকতে পারে। তবে ছোট বা সদ্য ভূমিষ্ঠ শিশু যদি দীর্ঘক্ষণ যাবত কান্নাকাটি করে এবং এ অবস্থায় তার মুষ্টিবদ্ধ ও পা ভাঁজ করা থাকে তবে বুঝতে হবে তার পেটে ব্যথা হচ্ছে। এবং পেটে বাতাস ঢোকার কারণে পেট ব্যথা হচ্ছে।

 

সঠিক নিয়মে শিশুকে দুধ না খাওয়ালে এবং  খাওয়ানোর পর পিঠে হাত বুলিয়ে (উপড় করে বা কোলে নিয়ে) বাতাস বের না করলে পেটে বাতাস জমে শিশুর প্রচণ্ড পেট ব্যথা হয়।

 

বাতাস বের করার পর বাচ্চাকে তার ডানদিকে কাত করে কিছুক্ষণ শুইয়ে রাখতে হবে। বামদিকে শোয়ানো যাবে না, তাহলে শিশুর পাকস্থলীর উপর চাপ পড়ে পেটে ব্যথা হবে। এছাড়া শুইয়ে দুধ খাওয়ালে শিশু ঠিকমতো খেতে পারে না, দুধ শ্বাসনালিতে চলে যেতে পারে আর পেট না ভরার কারণে শিশু কান্নাকাটি করে।

 

একটু বড় শিশুদের পেট ব্যথার কারণ অনেক। তবে সাধারণত যে সকল কারণে শিশুরা পেটের ব্যথায় কষ্ট পায় সেগুলোর মধ্যে কৃমি সংক্রমণ, পেট খারাপ বা পেটের অসুখ, অ্যাপেনডিসাইটিস খুব বেশি হতে দেখা যায়। পেটে কৃমি হলে সাধারণত শিশু খেতে চায় না, শুকিয়ে যায়, বমি বমি ভাব বা বমি হয়, পেট ব্যথা হয়।

 

পেট খারাপ বা পেটের অসুখ হলে পেটে ব্যথা হয়, সাথে বমি, পাতলা পায়খানা দুর্বলতা থাকতে পারে। অ্যাপেনডিসাইটিস হলে প্রথমে ব্যথা নাভির চারপাশে শুরু হয় এবং পরে গেটের ডানপাশে নীচের দিকে সীমাবদ্ধ হয়ে পড়ে। মাঝে মাঝে ব্যথা পুরো পেটে ছড়িয়ে পড়তে পারে। শিশুদের ক্ষেত্রে এই নিয়মের ব্যতিক্রম হতে পারে। ব্যথার সাথে জ্বর, বমি আর অন্যান্য অসুবিধাও থাকতে পারে।

 

শিশুর পেট ব্যথা এসব কারণেও হতে পারে

  • অন্ত্রের বিভিন্ন রোগ।
  • ভাইরাসজনিত হেপাটাইটিস-এর কারণে পেট ব্যথা হতে পারে।
  • ভাইরাসজনিত লিম্ফ এডেনাইটিস-এর কারণে ব্যথা হতে পারে।
  • শিশুদের মূত্রনালির প্রদাহ অথবা একটু বড় মেয়েদের ওফরাইটিস বা সালপিঞ্জাইটিস হলে বাথা হতে পারে।
  • পেপটিক বা ডুওডেনাল আলনার শিশুদের খুব একটা হয় না, কিন্তু যদি হয় কখনও তাহলে পেটে খুব ব্যথা হয়।
  • পেটে কোনো আঘাতের কারণেও ব্যথা হতে পারে।
  • অনেক সময় কোনো কারণ ছাড়াই শিশুর পেটে ব্যথা হতে পারে। এ ধরনের ব্যথা বেশিক্ষণ স্থায়ী হয় না।
  • শিশুর মানসিক কারণে, যেমন- রাগ করলে, মন খারাপ করলে পেট ব্যথা হতে পারে ৷ একটু আদর দিয়ে রাগ ভাঙালে এই ব্যথা আর থাকে না।
  • শিশুকে জোর করে খাওয়ালে বা শিশুকে বেশি পেট ভরে খাওয়ালে পেট ব্যথা হতে পারে। শিশুর পেট ব্যথা হলে তার কোষ্ঠকাঠিন্য আছে কি-না তা দেখতে হবে। কোষ্ঠকাঠিন্য হলে শিশুর পেটে ব্যথা হতে পারে। শিশু পেটে ব্যথার কথা বললে অথবা কান্নাকাটি করলে বুঝতে হবে তার পেটে ব্যথা অনুভূত হচ্ছে। অনেক সময় বেশি করে পানি খাওয়ালেও ব্যথার উপশম হয়।

শিশুর পেট ব্যথা যে কোনো কারণেই হোক না কেন, অবহেলা না করে যত তাড়াতাড়ি সম্ভব ব্যথা কমানোর ব্যবস্থা করতে হবে, ব্যথার কারণ বের করতে হবে এবং প্রয়োজনে চিকিৎসকের পরামর্শ গ্রহণ করে সেই অনুযায়ী কাজ করতে হবে।

শিশুর শ্বাসকষ্ট হলে কী করবেন?

শিশুর মুখের ঘা হলে কী করবেন?

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!