Monday, May 20
Shadow

কনভেকশন মাইক্রোওয়েভ ওভেন : যেকোনো মৌসুমেই বারবিকিউ

ঘরের ভেতর বসে মাংস ও সবজি নিখুঁতভাবে বারবিকিউ করা মোটেই সহজ নয়। তবে এই কনভেকশন মাইক্রোওয়েভ ওভেনের কুকিং ফাংশন এখন ঘরের ভেতরেই যেকোন সিজনে বারবিকিউ নাইট উদযাপন সম্ভব করে দিয়েছে। লিখেছেন জান্নাতুল মাওয়া অনন্যা

ঈদের এই মৌসুমে তাই কনভেকশন মাইক্রোওয়েভ ওভেন হয়ে ওঠতে পারে অন্যতম এক অনুষঙ্গ।
ঘরোয়া বারবিকিউ’র আয়োজনের শুরুতে; রেফ্রিজারেটর থেকে মেরিনেট করা মাংস বের করে নিয়ে তা ওভেনে ডিফ্রস্ট করে নিতে হয়। এরই মধ্যে সাইড ডিশের সবজিগুলোও কেটে ফেলা যায়। মাংস গ্রিল হওয়ার জন্য প্রস্তুত হলে বিপ বিপ শব্দে জানান দিবে ওভেন।

মাংস গ্রিল করার জন্য ওভেনের কনভেকশন মোড চালু করতে হবে। কনভেকশন ওভেনের অন্যতম সেরা ফিচার হল এর হটব্লাস্ট টেকনোলোজি, যার মাধ্যমে অসংখ্য এয়ার হোলস থেকে উত্তপ্ত বাতাস সরাসরি খাবারের ওপরে প্রবাহিত হয়। ফলে মাংস ও সবজি বাইরে থেকে মুচমুচে হয়ে এলেও ভেতরে থাকে একদম নরম আর রসালো!
খুব অল্প সময়েই ওভেনের মাংস গ্রিল হয়ে যাবে।

এরপর পাত্রে কেটে রাখা সবজির ওপর সামান্য অলিভ ওয়েল ব্রাশ করে পরিমাণমতো লবন ছিটিয়ে দিতে হবে। সবজির পাত্রটি স্লিমফ্রাই মোডে ওভেনে দিই। এই মোডে সবজি এয়ার-ফ্রায়ারের তুলনায় দ্রুত রান্না হয়, আবার রান্নার পর তেল চিটচিটে ভাবও থাকে না। কনভেকশন মাইক্রোওয়েভ ওভেনের স্লিমফ্রাই মোড তাই এক অর্থে এয়ারফ্রায়ার কেনার টাকাও সাশ্রয় করে। এভাবে সুস্বাদু বারবিকিউ মাংস আর সবজি প্রস্তুত হয়ে এলে তা মেহমানদের সামনে পরিবেশন করা যায়।

কনভেকশন ওভেনের আরেকটি সেরা বিষয় হলো, এটি সিরামিক এনামেল ক্যাভিটি দিয়ে তৈরি করা হয়, ফলে রান্না শেষে লেগে থাকা যেকোনো তেল-মসলা-চর্বি মুছে ফেলতে কোনো ঝক্কিই হয় না! এছাড়া বাজারে থাকা স্যামসাংয়ের যে কনভেকশন ওভেনটি রয়েছে, তাতে রয়েছে ডিওডোরাইজেশন অপশন। ফলে মাত্র ৫ মিনিটের মধ্যে ওভেনের ভেতর থেকে পোড়া তেল-মসলার সব গন্ধ মিলিয়ে যায় একেবারেই!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Please disable your adblocker or whitelist this site!

error: Content is protected !!