Thursday, December 2
Shadow

Tag: স্বাস্থ্য টিপস

প্রাকৃতিক উপায়ে ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণের কিছু টিপস

প্রাকৃতিক উপায়ে ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণের কিছু টিপস

Health, Health and Lifestyle
ডায়াবেটিস হলে শরীর স্বাভাবিক উপায়ে ইনসুলিন বানাতে পারে না। তখন চিনির পরিমাণ নিয়ন্ত্রণ করতে হয় বিকল্প উপায়ে। চাইলে প্রাকৃতিকভাবেই নিয়ন্ত্রণে রাখা যায় সুগার। ২০-৩০ মিনিট টানা হাঁটলেই সুগার হাতের মুঠোয় থাকবে। নাচ, হাইকিং, সাঁতার কাটলেও সুগার কমবে। ভাতের পরিবর্তে রুটি-সবজি বেশি খান। প্রতিদিন ভুট্টা, বার্লি, ওট খেতে পারেন। নারীদের ২৫ গ্রাম ও পুরুষদের প্রতিদিন ৩৮ গ্রাম আঁশ জাতীয় খাবার খেতে হবে। সাদা চালের গ্লাইসেমিক সূচক ৭০-৭৭। বাদামি চালের ৬৪-৭২। তাই সুগার কমাতে বাদামি চাল খান। কম জিআই খাবারের তালিকায় আছে শিম, ডাল, মটরশুঁটি, গমের রুটি, নাশপতি, আপেল, কমলা, মাশরুম, টকদই এমনকি ডার্ক চকলেটও খেতে পারেন। ডায়াবেটিসে আক্রান্তদের শরীর হাইড্রেটেড রাখতে হবে। পর্যাপ্ত পানি পান করলেও রক্তের শর্করা নিয়ন্ত্রণে থাকে। দুশ্চিন্তা করলে কিছু হরমোন বেড়ে যায়। এতে সুগারও বাড়ে। ফুরফুরে মেজাজে থ...
দ্রুত গ্যাস্ট্রিক কমানোর উপায় | গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা কমানোর পদ্ধতি

দ্রুত গ্যাস্ট্রিক কমানোর উপায় | গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা কমানোর পদ্ধতি

Health, Health and Lifestyle, ভেষজ
দ্রুত গ্যাস্ট্রিক কমানোর উপায় জানা থাকলে খুব সহজেই মুক্তি পাবেন বুকের জ্বালাপোড়া থেকে। জেনে নিন কয়েকটি টিপস। গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা কমানোর পদ্ধতি ইয়োগা করুন। চিৎ হয়ে শুয়ে পড়ুন। দুই হাঁটু ভাঁজ করে বুকের কাছে  নিন। হাত দিয়ে পা দুটো  ধরে বুকের কাছে চেপে ধরুন। মাথাটাও হাঁটুতে ছোঁয়ান। এভাবে ২০ সেকেন্ড থাকুন। হাঁটাহাঁটি: যদি বুঝতে পারেন গ্যাস নিয়ে সমস্যায় পড়তে যাচ্ছেন, তবে সঙ্গে সঙ্গে চেষ্টা করুন খানিকটা হাঁটাচলা করার। এতে সমস্যা গুরুতর হওয়ার আগেই কিছুটা হালকা হয়ে আসবে। পানীয়: কুসুম গরম পানি পান করে দেখুন। কিছু হারবাল চা-ও বানাতে পারেন।  এক্ষেত্রে পুদিনা বা আদার চা খেলে গ্যাস্ট্রিক কিছুটা কমতে পারে। নিজেও তৈরি করে নিতে পারেন একটি পানীয়—১০ গ্রাম জিরা গুঁড়ার সঙ্গে ১০ গ্রাম মৌরি গুঁড়া মিশিয়ে গরম পানিতে ২০ মিনিট রেখে পান করতে পারেন। এক গ্লাস কুসুম গরম পানিতে এক টেবিল চামচ অ্যাপেল সিডার...
ফিট থাকার পাঁচটি টিপস

ফিট থাকার পাঁচটি টিপস

Health, Health and Lifestyle
কোনো কাজ শুরুর আগে মানসিকভাবে প্রস্তুতি নিন। মানসিকভাবে একদম নিশ্চিত হয়ে নিন যে আপনি অবশ্যই ফিট থাকতে চান। এটি আপনার জন্য ভীষণ জরুরি। তাই অস্বাস্থ্যকর অভ্যাস বাদ দিচ্ছেন। তবেই এ যাত্রা ৭০ ভাগ সহজ হয়ে যাবে। অতিরিক্ত ওজন বা স্বাস্থ্য নিয়ে দুশ্চিন্তা ছেড়ে দিন। অতিরিক্ত চিন্তা, অবসাদ আপনার সুস্বাস্থ্যের পথে বাধা হয়ে দাঁড়াবে। স্বাস্থ্যকর জীবনযাপনের রুটিন তৈরি করে ফেলুন। সে অনুযায়ী শুরু করুন। খাদ্য তালিকায় হঠাৎ করেই বেশি পরিবর্তন আনবেন না। এতে ক্ষতিও হতে পারে আবার হতাশও হয়ে পড়তে পারেন। তবে নিজেকে ফাঁকি দিতে যাবেন না। স্বাস্থ্যকর, সুস্বাদু এবং পুষ্টিকর খাদ্যতালিকা তৈরি করে নিন। প্রয়োজনে সাহায্য নিন পুষ্টিবিদ বা ডায়েটিশিয়ানের। অফিস, এসাইনমেন্ট, পড়াশোনার চাপে দীর্ঘ সময় কম্পিউটার, ল্যাপটপের সামনে বসে থাকার প্রবণতা তৈরি হয়। তাই একটু হালকা ব্যায়াম, হাঁটাহাঁটির মাঝে থাকবার চেষ্টা করুন। প্রয়...
ভিটামিন ও খনিজ : এই ৭টি মিস করছেন না তো?

ভিটামিন ও খনিজ : এই ৭টি মিস করছেন না তো?

Health, Health and Lifestyle
দৈনন্দিন জীবনে আমাদের ভিটামিন ও খনিজ প্রয়োজন। এর মধ্যে কিছু ভিটামিন ও খনিজ আছে যেগুলো প্রতিনিয়ত আমাদের লাগবেই। এগুলো সম্পর্কে জানাচ্ছেন মাহমুদ হোসাইন সরকার   ভিটামিন ও খনিজ পটাশিয়াম আপনার খাবারে এই খনিজ উপাদানটি খুবই প্রয়োজন। কেননা এটি রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখে। সেই সাথে কিডনিতে পাথর হওয়ার ঝুঁকি কমায় এবং হাড়ের ক্ষয়রোধ করে। স্নায়ু ও পেশীর কার্যক্রম সচল রাখতে এর বিকল্প নেই। দুধ, গোলআলু, মিষ্টিআলু, কলা, অ্যাভাকেডো এবং মটরশুটির মধ্যে প্রচুর পরিমানে পটাশিয়াম পাওয়া যায়।   ম্যাগনেশিয়াম ভিটামিন ও খনিজ এর মধ্যে হাতের কাছে সহজে পাওয়া  সবজি পালংশাক ম্যাগনেশিয়ামের সবচেয়ে বড় উৎস। শিম, ছোলা, সকল প্রকার শস্য দানা এবং বাদামে (বিশেষ করে কাঠবাদাম) প্রচুর পরিমাণে ম্যাগনেশিয়াম থাকে। রোগ-শোক দুরে রাখতে দৈনন্দিন খাদ্য তালিকায় এসব খাবার রাখা উচিত। আপনার যদি পাকস্থলী অথবা অন্ত্রের সমস্যা...
ওজন কমানোর উপায় : এ ফলগুলো কম খাবেন

ওজন কমানোর উপায় : এ ফলগুলো কম খাবেন

Health, Health and Lifestyle
ওজন কমাতে কে না চায়। ওজন কমানোর উপায় খুঁজে পেতেও মরিয়া হয়ে থাকেন অনেকে। আজকালকার প্রসেস করা খাবারের যুগে ওজন একটা বড় মাথাব্যথা। আবার বাড়তি ওজন ডেকে আনতে পারে হাজারটা অসুখ বিসুখ। কিন্তু আমাদের প্রতিদিনকার এক-আধটু অভ্যাসই কিন্তু আমাদের ওজন বাড়িয়ে দিচ্ছে প্রতিনিয়ত। হুট করে মাছ মাংস বা ভাত বাদ না দিয়ে আগে দেখে নিন কোন খাবারে কতটুকু চর্বি বা চিনি রয়েছে। সাবধান হতে হবে ফলের বেলাতেও।   ওজন কমানোর উপায় : বেশি খাবেন না যে ফলগুলো একটি মাঝারি আকারের আমের মধ্যে ৪৫ গ্রাম চিনি থাকে। আপনি যদি ওজন কমানোর চেষ্টা করছেন, তাহলে আম খাওয়া থেকে বিরত থাকুন।   একটি মাঝারি আকারের কলায় ১৪ গ্রাম চিনি থাকে। অল্প পরিমাণে এটি খেতে পারেন।   তরমুজ- গ্রীষ্মে তরমুজ সবচেয়ে বেশি খাওয়া ফল। এতে প্রচুর জল থাকে। এর একটি বড় টুকরোতে প্রায় ১৭ গ্রাম চিনি থাকে। এর অত্যধিক ব্যবহার রক্তে...
ভিটামিন বি ১২-এর ঘাটতিতে দেখা দেয় ডিমেনশিয়ার লক্ষণ

ভিটামিন বি ১২-এর ঘাটতিতে দেখা দেয় ডিমেনশিয়ার লক্ষণ

Health, Health and Lifestyle
ভিটামিন বি-১২ এর ঘাটতিতে হতে পারে ভুলে যাওয়ার রোগ ডিমেনশিয়া ।  ভিটামিন বি-১২ রক্তের গঠন ও স্নায়ুতন্ত্রের কার্যকারিতার জন্য প্রয়োজনীয়। আমাদের শরীর নিজে থেকে এটি তৈরি করতে পারে না।  আবার এটি  উদ্ভিদে পাওয়া যায় না বললেই চলে। এদিকে ডিমেনশিয়া একবার দানা বাঁধলে তা মানবদেহে নানা প্রভাব ফেলে। রক্তাল্পতা থেকে শুরু করে কেন্দ্রীয় স্নায়ুতন্ত্রও নষ্ট করে দেয়। তাই জেনে রাখুন ডিমেনশিয়ার লক্ষণ গুলো   ডিমেনশিয়ার লক্ষণ :  বিভ্রান্তি ভিটামিন বি-১২ সুস্থ রক্ত ​​কোষ তৈরির করে, যা শরীরের বিভিন্ন অংশে অক্সিজেন বহন করে। লোহিত রক্তকণিকার অভাব মস্তিষ্কে অক্সিজেন সরবরাহ কমিয়ে দেয় যা রোগীর মধ্যে বিভ্রান্তির সৃষ্টি করে। মাঝে মাঝে মাথাও ঘুরতে পারে।   ডিমেনশিয়ার লক্ষণ : হতাশা গবেষণায় দেখা গেছে, বি১২ এর ঘাটতিতে সৃষ্ট হোমোসিস্টিনের উচ্চমাত্রা কিছু মস্তিষ্কের টিস্যু তৈরিতে বাধা দিতে পারে। এত...
মেছতা কী | মেছতা কেন হয় | মেছতা দূর করার উপায়

মেছতা কী | মেছতা কেন হয় | মেছতা দূর করার উপায়

Health, Health and Lifestyle
সূর্যের ক্ষতিকারক রশ্মির প্রভাবে হাইপার মেলানোসিস হয় অর্থাৎ মেলানিন উৎপন্ন হয়। এর ফলে ত্বকের কিছু কিছু জায়গায় গাঢ় কালো ছোপ ছোপ দাগ দেখা যায় যা মেছতা বা মেলাজমা নামে পরিচিত। মেলাজমা শব্দটি এসেছে গ্রীক শব্দ মেলাজ (melas) থেকে যার অর্থ কালো। যে কেউ এ রোগে আক্রান্ত হতে পারে। তবে নারীরা বেশি আক্রান্ত হয় বিশেষ করে গর্ভবতী নারী যারা জন্ম নিয়ন্ত্রণ ঔষ গ্রহণ বা হরমোন থেরাপি নেন। ত্বকের যে সমস্ত জায়গায় সূর্যরশ্মি বেশি পড়ে সে সমস্ত জায়গা যেমন- উপরের গাল, নাক, ঠোঁট এবং কপালে মেছতা দেখা যায়। এটি সাধারণত ৩০-৪০ বয়সের মধ্যে বেশি হয়। তবে মাঝেমধ্যে ঘাড়ের পাশে, কাঁধ ও উপরের বাহুতে দেখা যায়। গ্রীষ্ম প্রধান ও সাবট্রপিক্যাল দেশগুলোতে যেখানে সূর্য রশ্মি প্রখর সেখানে মেছতার আধিক্য দেখা যায়। মেছতা কে সাধারণত ৩ ভাগে ভাগ করা যায়। যথা- ১। এপিডার্মালঃ ত্বকের বহিঃ স্তরের উপরিভাগে এই প্রকার মেছতা দেখ...
পেটের চর্বি কমাবো কী করে? এটি খান নিয়মিত

পেটের চর্বি কমাবো কী করে? এটি খান নিয়মিত

Cover Story, Health, Health and Lifestyle
পেটের চর্বি কমাবো কী করে এ চিন্তায় ঘুম হারাম। শত ব্যায়াম করেও কমছে না Belly fat?  পেটের চর্বি তথা Belly fat কমানোর আছে একটি জাদুকরি সমাধান। এটি খেলে রক্তের খারাপ কোলেস্টেরল কমে যাবে।  হৃদরোগ, স্ট্রোক ও আরও কিছু রোগের ঝুঁকিও কমবে। দূর করবে পানিশূন্যতা । হজমের গতিও বাড়াবে। বলা হচ্ছে টক দইয়ের কথা। আর এই টক দই কিন্তু পেটের চর্বিও ঝরাতে পারে! টক দইতে আছে ক্যালসিয়াম। এটি দেহের বিএমআই ইনডেক্স ঠিক রাখে। আর তাই এটি Belly Fat burn করে দ্রুত। Yogurt তথা টক দই কম শর্করা ও উচ্চ প্রোটিনযুক্ত খাবার। এতে শরীরের আমিষের চাহিদা মিটলেও ওজন বাড়বে না। পেটের অতিরিক্ত মেদ Belly fat কাটাতেও দই ভলো ভূমিকা রাখে। আমেরিকান ডায়েট অ্যাসোসিয়েশনের গবেষণাও বলছে, নিয়মিত টক দই খেলে পেটের অতিরিক্ত চর্বি ঝরতে থাকে। ক্যালসিয়ামই এ কাজটা করে। ১০০ গ্রাম দইয়ে আছে ৮০ মিলিগ্রাম ক্যালসিয়াম। সকালের নাস্তায় এককাপ দই আর হাল...
মুখে দুর্গন্ধ হলে কী করবেন?

মুখে দুর্গন্ধ হলে কী করবেন?

Health, Health and Lifestyle
মুখে দুর্গন্ধ কেন হয় * খাদ্যাভ্যাস পরিবর্তন * শারীরিক কিছু রোগ এবং মুখ ও দন্ত রোগের প্রয়োজনীয় চিকিৎসা * সঠিক পদ্ধতিতে দন্ত পরিচর্যা। * দীর্ঘসময় ধরে না খেয়ে থাকা। * মুখের থুথু কমে যাওয়া- থুথু মুখের ব্যাকটেরিয়ার প্রজনন বন্ধ করে কিন্তু রমজানে থুথুর পরিমাণ কমে যাওয়ায় ব্যাকটেরিয়াগুলোর দ্রুত প্রজনন হয়ে থাকে, যা দুর্গন্ধের কারণ হয়। * যেসব খাবার মুখের পানিশূন্যতা সৃষ্টি করে, তা বেশি খাওয়া। *কম পানি পান করা * যেসব খাবার মুখের দুর্গন্ধের সৃষ্টি করে, সেহরি বা ইফতারের সময় সেগুলো খাওয়া। * নিয়মিত নিয়মমতো মুখ ও দাঁতের পরিচর্যা না করা। * কিছু কিছু শারীরিক সমস্যা থাকা যেমন- নিয়ন্ত্রণহীন ডায়াবেটিস, পেটের পীড়া, লিভারের সমস্যা, টনসিলজনিত সমস্যা ইত্যাদি। * মুখ দিয়ে শ্বাস নেওয়ার অভ্যাসগত সমস্যা। * দীর্ঘ সময় কিছু না খাবারের কারণে ও জিহ্বা পরিষ্কার না করার কারণে জিহ্বার উপর সাল...

যে রোগ অবহেলা করলে নারীদের হতে পারে বিপদ

Health, Health and Lifestyle
নারীঘটিত রোগগুলোর মধ্যে অন্যতম পলিসিস্টিক ওভারি সিন্ড্রোম।  এই রোগে মধ্যবয়সীরা নারীরা বেশি আক্রান্ত হচ্ছেন।  অনেক বিবাহিত তরুণীর ক্ষেত্রেও এই সমস্যা দেখা দেয়।  এই রোগ হলে অবহেলা ও কালক্ষেপণ করা যাবে না। পলিসিস্টিক ওভারি সিন্ড্রোম মূলত নারীদেহে এন্ড্রোজেন (পুরুষ যৌন হরমোন)-এর আধিক্যের কারণে সংঘটিত শারীরিক সমস্যা। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় এন্ডোক্রাইনোলজি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ও হরমোন ও ডায়াবেটিস বিশেষজ্ঞ ডা. শাহজাদা সেলিম এ বিষয়ে বলেন, এই রোগ খুবই বিপজ্জনক। তিনি বলেন, পলিসিস্টিক ওভারি সিন্ড্রোমের বেশ কিছু উপসর্গ রয়েছে।  যেমন- ক. অনিয়মিত মাসিক খ. অতিরিক্ত রক্তস্রাব গ. মুখে ও শরীরে অত্যধিক লোম (পুরুষালি) ঘ. ব্রণ মুখে ও শরীরের অন্যান্য অংশে। আরও কিছু শারীরিক সমস্যা এর সঙ্গে যোগ হতে পারে- তলপেটে ব্যথা, মকমলেরমতো কালো ত্বক (ঘাড়, বগল ইত্যাদি জা...
error: Content is protected !!