Friday, July 19
Shadow

Tag: হার্ট অ্যাটাক

একা থাকাবস্থায় হার্ট অ্যাটাক হলে দ্রুত এই ৪টি কাজ করুন

Cover Story, Health and Lifestyle
একা থাকাবস্থায় হার্ট অ্যাটাক হলে দ্রুত এই ৪টি কাজ করুন হার্টে যে কোন সময় সমস্যা দেখা দিতে পারে। বর্তমানে আমাদের দেশের জনসংখ্যার একটা বড় অংশ হার্ট সমস্যায় ভুগছেন। যতো দিন গড়াচ্ছে ততই এই রোগটি যেন মাথা চাঁড়া দিয়ে উঠছে। বিশেষজ্ঞরা বলছে, আগামী ২০৫০ সাল নাগাদ শুধু উন্নত বিশ্ব নয়, তৃতীয় বিশ্বের দেশগুলোতেও হার্টের রোগী এতো পরিমাণে বাড়বে যে, প্রতি তিনজনের মধ্যে একজনের হার্টের সমস্যা থাকবে। তাই আমাদের প্রত্যেকেরই খাদ্যাভাসে পরিবর্তন আনার পাশাপাশি কায়িক পরিশ্রমের দিকেও নজর দিতে হবে। তাছাড়া হার্ট অ্যাটাক হলে প্রত্যেকেরই কিছু প্রাথমিক চিকিৎসা সম্পর্কেও ধারণা থাকা দরকার। আপনি একা থাকা অবস্থায় যদি আপনার হার্ট অ্যাটক হয় কিংবা অন্য যে কোন সময় যদি হার্ট অ্যাটাক হয় তাহলে আপনি কি করবেন? নিচের বর্ণনা থেকে জেনে নিন এর বিস্তারিত- অ্যাটাকের সাধারণ লক্ষণ বুকের বাম দিকের একেবারে মাঝে প্রচণ্ড যন্ত্রণা হ...

হার্ট অ্যাটাক হওয়ার ১ মাস পূর্বে শরীরে যে ৬টি লক্ষণ দেখা দেয়

Cover Story, Health and Lifestyle
হার্ট অ্যাটাক হওয়ার ১ মাস পূর্বে শরীরে যে ৬টি লক্ষণ দেখা দেয় পৃথিবীতে প্রতি বছর প্রায় ৬ লক্ষ্যেরও বেশি লোক হার্ট অ্যাটাক করে মারা যাচ্ছে। বাংলাদেশও এর ব্যতিক্রম নয়। গত ৩০-৪০ বছরের তুলনায় এদেশে হার্ট অ্যাটাকে মৃত্যুর সংখ্যা ৫০% বৃদ্ধি পেয়েছে। অথচ একটু সতর্ক হলেই এর মধ্যে অর্ধেক মানুষের প্রাণ বাঁচানো সম্ভব। হার্ট অ্যাটাক হওয়ার অন্তত এক মাস আগে শরীরে কিছু লক্ষণ দেখা দেয় যা আমরা অনেকেই জানি না। এগুলো দেখা দিলে সাথে সাথে চিকিৎসকের শরণাপন্ন হলে অনেক রোগীকে বাঁচানো সম্ভব। চলুন তাহলে লক্ষণগুলো জেনে নেই- হার্ট অ্যাটাকের ৬টি পূর্বলক্ষণ বুকে চাপ অনুভূত হওয়া হার্ট অ্যাটাক একদিন হঠাৎ করে হয়ে যায় না। এর আগে বুকে চাপ ও ব্যথা সৃষ্টি করে বার বার আপনাকে সতর্ক করার চেষ্টা করে। তাই ঘন ঘন বুকে প্রচণ্ড চাপ ও ব্যথা হতে থাকলে ডাক্তারের শরণাপন্ন হোন। সর্দি-কাশি বা ফ্লু লেগে থাকা হৃদরোগের সমস্য...

ইসিজি নরমাল মানেই যে হার্ট অ্যাটাক হয়নি—এমনটি মনে করা যাবে না

Cover Story, Health and Lifestyle
ইসিজি নরমাল মানেই যে হার্ট অ্যাটাক হয়নি—এমনটি মনে করা যাবে না অধ্যাপক ডা. আব্দুল ওয়াদুদ চৌধুরী বিভাগীয় প্রধান, হৃদরোগ বিভাগ ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতাল করোনারি হৃদরোগ নির্ণয়ে রোগীকে কিছু পরীক্ষা-নিরীক্ষার পরামর্শ দেওয়া হয়। এর মধ্যে প্রথমেই আসে ইসিজি। অনেকের ধারণা, ইসিজি স্বাভাবিক তো সব ঠিক, হৃদরোগ নেই। কিন্তু ব্যাপারটা আসলে তা নয়।   অনেকের বুকে ব্যথা থাকলেও দেখা যায়, ইসিজি নরমাল। কিন্তু ইসিজি নরমাল মানেই যে হার্ট অ্যাটাক হয়নি—এমনটি মনে করা যাবে না। অনেকেই এ ক্ষেত্রে ভুল করে থাকেন। অথচ ২৫ শতাংশ ক্ষেত্রে প্রাথমিক ইসিজিতে হার্ট অ্যাটাকের প্রমাণ মেলে না। রোগীর অবস্থা বুঝতে হয় রোগীর উপসর্গ শুনে। কারো বুকের ব্যথার পর ইসিজি নরমাল এলেও প্রয়োজনে কিছুক্ষণ হাসপাতালে অবজারভেশনে থেকে আবার ইসিজি করানো উচিত। তা ছাড়া ইটিটি, ইকোকার্ডিওগ্রাম, করোনারি এনজিওগ্রাম ইত্যাদি প...

হার্ট অ্যাটাক এর আগে যে সংকেত দেয় হৃদপিণ্ড

Cover Story, Health and Lifestyle
হার্ট অ্যাটাক এর আগে যে সংকেত দেয় হৃদপিণ্ড বিশ্বজুড়েই হার্ট অ্যাটাকের প্রবণতা দিন দিন বাড়ছে। বর্তমানে অনেক কম বয়সীদেরও এই রোগ ভুগতে দেখা যায়। দিন দিন দূষণের মাত্রা যত বাড়ছে, ততই বাড়ছে শ্বাসকষ্টজনিত সমস্যা ও হার্টের সমস্যা। এক গবেষণায় জানা গেছে, হার্ট অ্যাটাকের আগ থেকেই শরীরকে ক্রমাগত সংকেত দেয় হৃদপিণ্ড। এক্ষেত্রে ৬টি তথ্যও দিয়েছেন গবেষকরা। এগুলো হল: ১. শরীর দুর্বল হয়ে পড়ে। ধমনীতে রক্তের প্রবাহ কমে যায় বলেই এমনটা হয়। ২. ঝিমুনির ভাব হবে। একই সঙ্গে রক্তের প্রবাহ কমে যাওয়ায় শরীরে একটা শীতল ভাবও অনুভূত হবে। ৩. হার্ট অ্যাটাক আসার প্রায় এক মাস আগে থেকেই বুকে ব্যথা অনুভূত হতে থাকবে। এই ব্যথা বুকে থেকে শরীরের অন্য অংশেও ছড়িয়ে পড়বে। বিশেষ করে পিঠ, হাত ও কাঁধে ছড়িয়ে বড়বে ব্যথা। ৪. হার্ট অ্যাটাক আসার আগে কিছুদিন আগে থেকেই ঠাণ্ডা লাগার সমস্যা বেড়ে যায়। ৫. সামান্য পরিশ্...
আকষ্মিক হার্ট অ্যাটাক ! অন্যের সাহায্য ছাড়াই যেভাবে বাঁচাবেন নিজেকে

আকষ্মিক হার্ট অ্যাটাক ! অন্যের সাহায্য ছাড়াই যেভাবে বাঁচাবেন নিজেকে

Cover Story, Health and Lifestyle
হার্ট অ্যাটাক : মনে করুন, দিনের বা রাতের কোনো একটা সময় একা একা নিজের ঘরে বসে আছেন। বাসার লোকজন অন্য কামরাতে বসে টিভি দেখছে, বই পড়ছে বা কেউ ঘুমাচ্ছে। এমন অবস্থায় হঠাৎই বুকে প্রচণ্ড ব্যথা শুরু হলো। বিনা দাওয়াতে হাজির মেহমানের মতো নাছোরবান্দা ব্যথাটা যেন আস্তে আস্তে আপনার নিচের চোয়ালের দিকে হেঁচড়ে আসা শুরু করলো! কাছাকাছি কেউ নেই। আপনি বুঝতে পারছেন, হৃদপিণ্ডের ক্রিয়া বন্ধ হবার উপক্রম হয়েছে আপনার। এখন আপনি কী করবেন?! হার্ট অ্যাটাক হবার ফলে অধিকাংশ সময় মানুষ মারা যান, কারণ, বেশিরভাগ হার্ট অ্যাটাক সময়ে দেখা গেছে, অ্যাটাককারীন সময়ে তারা একা থাকেন। অন্য কারো সাহায্য ছাড়া তাদের বুকের ওপর পাম্প করে হৃদযন্ত্রে রক্ত সঞ্চালন সম্ভব হয় না এবং ব্যথা শুরু হবার পরে অজ্ঞান হয়ে যাবার আগ পর্যন্ত সাধারণত তাদের হাতে সময় থাকে মাত্র ১০ সেকেণ্ড। এমতাবস্থায় বুকে ব্যথার শিকার ব্যক্তি নিজেকে সাহায্য কর...

Please disable your adblocker or whitelist this site!

error: Content is protected !!