Friday, July 19
Shadow

চীনের গ্রিডে যুক্ত হলো অতিকায় বায়ুকল

পূর্ব চীনের ফুচিয়ানে চালু হয়েছে চীনের একক-ক্ষমতাসম্পন্ন সবচেয়ে বড় বায়ুকল। বৃহস্পতিবার পাওয়ার গ্রিডে যুক্ত হয়েছে বায়ুকলগুলো। চীনের বৃহদাকার উপকূলীয় বায়ুশক্তির বিকাশে যা নতুন মাইলফলক তৈরি করেছে।

নতুন অফশোর উইন্ড পাওয়ার প্রজেক্টটি নির্মাণ করেছে চায়না থ্রি গর্জেস কর্পোরেশন। ফুচিয়ানের চাংপু কাউন্টিতে থাকা বায়ুকলগুলো উপকূলরেখা থেকে প্রায় ৩০ কিলোমিটার দূরে।

অফশোর উইন্ড ফার্মটির উৎপাদন ক্ষমতা ৪০০ মেগাওয়াট। ১৩ মেগাওয়াট বা তার বেশি ক্ষমতার সুপার লার্জ সিঙ্গেল-ইউনিট ক্ষমতার বায়ু টারবাইন ব্যবহার করা হয়েছে এতে। এতে ছয়টি টারবাইন রয়েছে, যার প্রতিটির ক্ষমতা ১৬ মেগাওয়াট করে।

Chinese windmill

বর্তমানে, চীনের অফশোর বায়ু-বিদ্যুৎকেন্দ্রগুলোতে পাঁচ থেকে আট মেগাওয়াট ক্ষমতার টারবাইন ব্যবহার করা হয়। ১০ মেগাওয়াটের বেশি ক্ষমতা হলেই টারবাইনগুলিকে ‘সুপার লার্জ ক্যাপাসিটি’ ইউনিট বিবেচনা করা হয়। একটি ১৬ মেগাওয়াট অফশোর উইন্ড টারবাইন প্রতিটি ঘূর্ণনে ৩৪ কিলোওয়াট-ঘণ্টারও বেশি বিদ্যুৎ উৎপাদন করতে পারে।

প্রকল্পটি বছরে প্রায় ১৬০ কোটি কিলোওয়াট-ঘণ্টা বিদ্যুৎ উৎপাদন করবে বলে আশা করা হচ্ছে, যাতে প্রায় ৬ লাখ ৮০ হাজার পরিবারের বিদ্যুতের চাহিদা পূরণ হবে। এতে কার্বন নির্গমণ কমবে ১৩ লাখ ৬০ হাজার টন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Please disable your adblocker or whitelist this site!

error: Content is protected !!